২০ বছরে পদার্পণ স্বেচ্ছাসেবী সংগঠন হিতকরী’র

নিজস্ব প্রতিনিধি
“উপকার করো, উপকৃত হবে” এই স্লোগানকে ধারণ করে একে একে ২০ বছরে পদার্পণ করেছে উপজেলার অন্যতম সামাজিক স্বেচ্ছাসেবী ও অরাজনৈতিক সংগঠন হিতকরী। সংগঠনটি ২০০১ সালের ২০ সেপ্টেম্বর কিছু স্কুল পড়ুয়া শিক্ষার্থী মিলে প্রতিষ্ঠা করেন। সংগঠনটি প্রতিষ্ঠা লগ্ন থেকে এলাকায় সামাজিক উন্নয়নমূলক কার্যক্রম চালিয়ে যাচ্ছে। সমাজে সুবিধা বঞ্চিত মানুষের পাশে দাড়ানো, আগুনে ক্ষতিগ্রস্থদের সহায়তা, মানসিক রোগীদের সেবা ও সু-চিকিৎসার ব্যবস্থা করা, অবহেলিত শিক্ষার্থীদের ফ্রি কোচিং, ঝরে পড়া শিক্ষার্থীদের পাঠ্যমুখী করতে পুরুস্কার প্রদান, সদস্যদের স্বেচ্ছায় রক্তদান, রোহিঙ্গা শরনার্থীদের ত্রাণ সহায়তা, উত্তরবঙ্গে ভানবাসিদের ত্রাণ সহায়তা, বৃক্ষ রোপন কর্মসূচিসহ সমাজের বিভিন্ন উন্নয়নমূলক কাজ করে আসছে। সম্প্রতি করোনা সংকট পরিস্থিতিতে অসহায় ও দরিদ্র পরিবারের ঘরে ঘরে খাদ্য সামগ্রী পৌঁছে দেন।

কাজের সীকৃতি হিসেবে চলতি বছর গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের যুব উন্নয়ন অধিদপ্তর থেকে সরকারি নিবন্ধন লাভ করে সংগঠনটি।

প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী উপলক্ষে ব্যতিক্রমী আয়োজন করে সংগঠনটি। বর্তমান মহামারি করোনা ভাইরাসের কারনে দুই দশক পূর্তি অনুষ্ঠান বাতিল করে সেই টাকায় একটি জনসচেতনতামূলক স্টিকার প্রচারের পদক্ষেপ নেয়া হয়েছে। যেখানে বিভিন্ন রক্তদাতা ব্যবস্থাপকের নম্বর সংযুক্ত করা হয়েছে। মানুষ চাইলেই যাতে তাঁদের সহযোগিতা পেতে পারে। সাথে গর্ভবতী মায়েদের ব্যপারে সচেতনতা মূলক তথ্য যুক্ত করা হয়েছে।

এছাড়া ২০ বছরে পদার্পণে আনন্দ র‍্যালী ও কেক কাটার আয়োজন করা হয়। মিরসরাই উপজেলা পরিষদ চত্বরে র‍্যালীটি পদক্ষিন করে উপজেলা পরিষদ মিলনায়তনে কেক কাটা হয়। এসময় প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন মিরসরাই উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যান এম আলাউদ্দিন। আরো উপস্থিত ছিলেন, মিরসরাই সরকারী পাইলট উচ্চ বিদ্যালয়ের শিক্ষক হোসাইন সবুজ, ক্রীড়া শিক্ষক দিদারুল আলম, স্বেচ্ছাসেবী সংগঠন শান্তিনীড় সভাপতি ইঞ্জিনিয়ার আশরাফ উদ্দিন, দুর্বার প্রগতি সংগঠনের প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি হাসান সাইফ উদ্দিন, নির্বাণ সংঘের সভাপতি তানভীর আহম্মদ, হিতকরীর প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি শহিদুল ইসলাম রয়েল, সমন্বয়ক ইফতেখার হাসনাইন রুমন্ত, যুগ্ম সমন্বয়ক আবু নাঈম দুর্লভ, হিতকরীর সভাপতি নিয়াজুল ইসলাম নয়ন, সাধারণ সম্পাদক ফিরোজ মাহমুদ, সৃজন সংঘের সভাপতি আসিফুল ইসলাম, রক্তিম পরিবারের সদস্য আনোয়ার হোসেন, স্বপ্নতরী৭১ সাধারণ সম্পাদক নুর মোহাম্মদ প্রমুখ।

হিতকরী প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি শহিদুল ইসলাম রয়েল বলেন, ২০০১ সালের এই দিনে হিতকরীর প্রতিষ্ঠা। হিতকরী তরুনদের আত্মকেন্দ্রীক সংগঠন হিসেবে শুরু হলেও জনমানুষের আশা আকাঙ্খায় সাড়া দিতে গিয়ে কালক্রমে জনহিতকর সংগঠনে পরিণত হয়। এই বিশ বছরে বহু চড়াই উৎরাই পেরিয়ে আমরা আপন আঙ্গিকে চলছি বহতা নদীর মত। সাথে থেকে উৎসাহ উদ্দিপনা সাহায্য সহযোগিতা করেছেন নানা শ্রেনী পেশার মানুষ। সকলকে শুভেচ্ছা অভিনন্দন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*