ছাগলনাইয়ার ঘোপালে গুলিতে যুবলীগ কর্মী নিহত

নিজস্ব প্রতিবেদক>>>

আধিপত্য বিস্তারকে কেন্দ্র করে ছাগলনাইয়ার ঘোপাল ইউনিয়নের সমিতি বাজারে প্রতিপক্ষের গুলিতে সিরাজুল ইসলাম (৩০) নামে এক যুবলীগ কর্মী নিহত হয়েছে। রবিবার (৮ ডিসেম্বর) বিকালে এ ঘটনা ঘটে। এসময় গুরুতর আহত হওয়া আরো তিনজনকে চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে (চমেক) নেয়া হয়েছে। আহতরা হলেন পারভেজ, জিহান ও অনিক। তাদের মধ্যে পারভেজের অবস্থা আশংকাজনক।

এলাকাবাসী সূত্রে জানা যায়, ঘোপাল ইউনিয়নের আলোকদিয়া নিজকুঞ্জরা, সমিতি বাজারের আধিপত্য নিয়ে বিরোধ চলে আসছে স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যান আজিজুল হক মানিক ও ছাগলনাইয়া উপজেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক জুলফিকুল ছিদ্দিকের মধ্যে।

এ ঘটনাকে কেন্দ্র করে রবিবার দুপুরে চেয়ারম্যান আজিজ গ্রুপের ওমর ফারুক, সোহরাব হোসেন বাদশা, নয়ন, মোঃ শিফাত, বেকারী শহীদ, ফাহিমুল ইসলাম বাবু, ডালিম হাজারী সহ ১৫-১৬ জন অস্ত্র-সস্ত্র নিয়ে সমিতি বাজারে একটি চায়ের দোকানে বসা অবস্থায় সিরাজুল ইসলামের উপর অতর্কিত হামলা ও গুলি করে। এসময় পারভেজ, জিহান ও নয়নকে কুপিয়ে আহত করে তারা পালিয়ে যায়। ঘটনাস্থলে সিরাজ মারা যায়। নিহত সিরাজ উপজেলা আওয়ামীলীগের যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক জুলফিকার এর অনুসারী বলে স্থানীয়রা জানিয়েছে। সে নিজকুঞ্জরা গ্রামের আবদুল কাদেরের ছেলে।
স্থানীয়রা আহতদের উদ্ধার করে চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে প্রেরণ করেছেন। পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য ফেনী জেনারেল হাসপাতালে নিয়ে যান। এ ঘটনার প্রতিবাদে বিক্ষুদ্ধ নেতাকর্মীরা এক ঘন্টা ধরে ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়ক অবরোধ করে রাখে। খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে। বর্তমানে এলাকায় থমথমে পরিস্থিতি বিরাজ করছে। বাজারে দোকান পাট বন্ধ রয়েছে।

স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যান আজিজুল হক মানিক মুঠোফোনে জানান, অভ্যন্তরীণ দ্বন্দের কারণে এ ঘটনা ঘটেছে। তিনি বা তার লোকজন এ ঘটনায় জড়িত নন বলে তিনি দাবী করেন।

ছাগলনাইয়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মেসবাহ উদ্দিন একজন নিহতের ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, খবর শুনে পুলিশ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছেন। কিভাবে হত্যাকান্ড হয়েছে এখনও জানা যায়নি। ঘটনার তদন্তের পর জানা যাবে। এই ঘটনায় এখনো পর্যন্ত থানায় কোন মামলা দায়ের হয়নি।

Share

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*