ফরমালিন থেকে বাঁচুন

জাহেদুর রহমান ইকবাল…

এখন জীবনযাত্রার সাথে ফরমালিনযুক্ত জিনিস যেন মিশে গেছে। মাছ-গোশত, সবজি, ফলমূল সবকিছুতেই ফরমালিনের অপব্যবহার। নানা প্রচারণা, আদেশ-নিষেধ থাকলেও এই ক্ষতিকর জিনিসের ব্যবহার রোধ করা যাচ্ছে না। কার্বাইড ও ফরমালিনের খাবার থেকে ভোক্তারা আক্রান্ত হন কিডনি, লিভার, হৃদরোগ, ক্যান্সারসহ জটিল রোগে।

তা ছাড়া মানবদেহে গ্যাস্ট্রিক আলসার, পাকস্থলী ও অন্তনালীর প্রদাহ, ক্ষুধামান্দ্য, অরুচি, লিভার সিরোসিস, কিডনি ফেইলুর, এমনকি লিভার ক্যান্সারও হতে পারে। হতে পারে রক্তস্বল্পতা বা লিউকেমিয়ার মতো প্রাণঘাতী রোগ। তাই ফরমালিন থেকে সাবধান থাকা জরুরি।
প্রত্যেককেই সাবধানতা অবলম্বন করতে হবে। ফল খাবার আগে কমপক্ষে এক ঘণ্টা বা তার চেয়ে বেশি সময় পানিতে ভিজিয়ে রাখতে হবে সে ফলমূল। এরপর তা ভালোভাবে পরিষ্কার করে খেতে হবে।

সবুজ শাকসবজিতে আজকাল ফরমালিন মেশানো হচ্ছে। এসব ক্ষেত্রে সবজি রান্না করার আগে ১০ মিনিট লবণ পানিতে ডুবিয়ে রাখতে হবে।
তারপর তা ঠাণ্ডা পানি দিয়ে ভালোমতো পরিষ্কার করে রান্না করা যেতে পারে। মাছে ফরমালিনের ব্যবহার ব্যাপক। মাছ বাজার থেকে এনে ১০ ঘণ্টা পানিতে ডুবিয়ে রাখলে ফরমালিনের পরিমাণ শতকরা ৬০ ভাগ কমে যায়। তবে ভালো পদ্ধতি হলো- ভিনেগার ও পানির মিশ্রণে ১৫ মিনিট ডুবিয়ে রাখলে ফরমালিন ১০০ ভাগ কমে যায়।

Share

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*