বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব শিল্পনগরে হেলথকেয়ার কারখানার ভিত্তি প্রস্তর স্থাপন

নিজস্ব প্রতিনিধি

বেজা’র নির্বাহী চেয়ারম্যান পবন চৌধুরী বলেছেন, বেজার হাত ধরে বাংলাদেশ বিনিয়োগ বান্ধব সুস্থ্য পরিবেশ গড়ে তুলতে সমর্থ হয়েছে। বিশ্বের কাছে উন্নয়নের রোল মডেল স্থাপন করেছে। মিরসরাইয়ে দক্ষিণ এশিয়ার অন্যতম বৃহৎ অর্থনৈতিক অঞ্চল ও শিল্পনগর নির্মিত হচ্ছে। এর ফলে এদেশে অভূতপূর্ব বিল্পব সাধিত হবে। বিরানভূমি আজ শিল্পের পদচারনায় সমৃদ্ধ হয়ে উঠেছে। সেই সাথে দ্রুত শিল্প স্থাপনের জন্য গ্যাস, বিদ্যুৎ সহ সকল সেবা প্রদানের জন্য প্রয়োজনীয় কার্যক্রম বেজা সম্পন্ন করছে। শুক্রবার (২৯ জানুয়ারি) দুপুরে
বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব শিল্পনগরে বাংলাদেশের অন্যতম শিল্প প্রতিষ্ঠান হেলথকেয়ার ফার্মাসিউটিক্যালস লিমিটেডের কারখানার ভিত্তি প্রস্তর স্থাপন অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন। এসময় অন্যানের মধ্যে হেলথকেয়ার ফার্মাসিউটিক্যালস লিমিটেডের ব্যবস্থাপনা পরিচালক আলা উদ্দিন আহম্মদ, ব্যবস্থাপনা পরিচালক হালিমুজ্জামান প্রমুখ। অনুষ্ঠানে মিরসরাই উপজেলা নিবার্হী কর্মকর্তা মিনহাজুর রহমান, সহকারী কমিশনার (ভূমি) সুবল চাকমাসহ হেলথকেয়ার ও বেজার উর্ধতন কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।

পবন চৌধুরী আরো বলেন, বঙ্গবন্ধু শিল্পনগরে পরিকল্পিত পরিবেশ বান্ধব শিল্পাঞ্চল গড়ে তোলার কারণে বিশ্বের বিভিন্ন দেশ এখানে বিনিয়োগ করছে। আগামী কয়েক মাসের মধ্যে কয়েকটি ফ্যাক্টরী উৎপাদনে যাবে। আরো নতুন নতুন শিল্প প্রতিষ্ঠান তাদের কাজ শুরু করবে। এখানে ৪০টি মসজিদ নির্মাণ করা হবে। এজন্য আমরা জায়গা নির্ধারন করেছি। ২০ কোটি টাকা ব্যয়ে সব চেয়ে বড় কেন্দ্রীয় মসজিদ নির্মাণ করা হবে। এছাড়া একটি মন্দির ও গির্জাও নির্মাণ করার পরিকল্পনা রয়েছে। অর্থনৈতিক অঞ্চলের চিত্র প্রতিদিন পাল্টে যাচ্ছে। মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার দূরদর্শীতার কারণে এমনটা সম্ভব হয়েছে।

হেলথকেয়ার ফার্মাসিউটিক্যালস লিমিটেডের ব্যবস্থাপনা পরিচালক আলা উদ্দিন আহম্মদ বলেন, একটি শিল্পকারখানা গড়ে সেসকল সুযোগ সুবিধা দরকার বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব শিল্পনগরে তার সবগুলো রয়েছে। বেজার কথার সাথে কাজের মিল থাকায় এখানে নতুন কারখানা করতে আমরা আগ্রহী হয়েছি। আমরা প্রাথমিকভাবে ৩০ একর জমিতে কারখানা স্থাপনের চিন্তা ভাবনা থাকলেও এখানকার পরিবেশ দেখে আরো ১০ একর বেশি জায়গা নিয়েছে। আমরা ৪০ একর জমির উপর ৪২৩ মিলিয়ন মার্কিন ডলার বিনিয়োগের আশা রাখছি। এতে প্রায় ৭২০০ জন মানুষের কর্মসংস্থান হবে।

Share

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*