মিরসরাইয়ে ২৩দিন ধরে যুবক নিখোঁজ



মিরসরাই প্রতিনিধি
মিরসরাইয়ে খুরশিদ আলম (১৯) নামে এক যুবক নিখোঁজ হয়েছে। সে লক্ষীপুর জেলার রায়পুর থানার উদমরা গ্রামের সর্দারবাড়ির মৃত মো. শহীদের ছেলে। খুরশিদ আলম একজন মানসিক রোগী। মানসিক চিকিৎসার জন্য গত ১৩ সেপ্টেম্বর মিরসরাইয়ের বিশ^দরবার নিয়ে এসেছিলো তার মা খুরশিদা বেগম। সেখান থেকে ১৫ সেপ্টেম্বর খুরশিদ আলম নিখোঁজ হয়ে যায়।
খুরশিদা বেগম বলেন, বিশ^দরবারে মানসিক রোগের চিকিৎসা হয় শুনে আমি লক্ষীপুর থেকে ছেলেকে নিয়ে আসি। দরবারে আসার পর আমাকে ও খুরশিদকে আলাদা রুমে রাখা হয়। চিকিৎসার জন্য ৭ দিন দরবারে থাকতে বলা হয়। পরবর্তীতে গত ১৫ সেপ্টেম্বর আমার ছেলে সেখান থেকে নিখোঁজ হয়ে যায়। আমি অনেক খুঁজেও তাকে পাইনি। দরবার কর্তৃপক্ষ ছেলেকে খুঁজেও দিচ্ছে না। ছেলের চিকিৎসার জন্য দরবারের মুন্সিকে আমি ২ হাজার ৫’শ টাকা দিয়েছি। এঘটনায় তিনি গত ১৮ সেপ্টেম্বর মিরসরাই থানায় একটি নিখোঁজ ডায়েরি (জিডি নং-১২৬২) করেন। তার ছেলের গায়ের রং ফর্সা। কোন সহৃদয়বান ব্যক্তি যদি খোঁজ পান তাহলে ০১৮৪৬-১২২৪৪১, ০১৬০৯-৫০০২৯৪ নাম্বারে যোগাযোগ করার অনুরোধ করেন।
বিশ^দরবারে দায়িত্বে থাকা মো. মুন্সি বলেন, দরবারে নিয়ত করে অনেকে আসেন। কিছুদিন আগে এক মহিলা মানসিক রোগী তার ছেলেকে নিয়ে আসেন। সে নিজ দায়িত্বে ছেলেকে নিয়ে আসেন। তার ছেলে দরবার থেকে কোথায় হারিয়ে গেছে তা আমরা জানি না। ওই মহিলা থেকে টাকা নেওয়ার কথাটি তিনি অস্বীকার করেন।
মিরসরাই থানার সেকেন্ড অফিসার (এসআই) রাজিব পোদ্দার বলেন, বিশ^ দরবার থেকে ছেলে নিখোঁজের বিষয়ে খুরশিদা বেগম নামে একজন মহিলা থানায় জিডি করেছেন। এ বিষয়ে বিভিন্ন জায়গায় খোঁজখবর নেওয়া হচ্ছে।

Share

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*